সব ধরনের গ্রাহককে ঋণদানের পাশাপাশি কৃষক ও সরকারি কর্মচারীদের আবাসন ঋণ দেয় বিএইচবিএফসি। প্রতিষ্ঠানটির কৃষকদের যে ঋণ দেয়, তা পেতে হলে সংশ্লিষ্ট কৃষককে অবশ্যই আরবান, উপজেলা সদর কিংবা গ্রোথ-সেন্টার এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে। শহরে এ ধরনের ঋণ দেওয়া হয় না। এ ছাড়া সরকারি কর্মচারীদের কম সুদে ঋণ পেতে হলে তাদের হতে হবে স্থায়ী নিয়োগপ্রাপ্ত।

বিএইচবিএফসি থেকে ঋণ নিয়ে বাড়ি নির্মাণ করতে চাইলে সাধারণত গ্রাহকের নিজের ২০ থেকে ৩০ শতাংশ টাকা থাকতে হয়। অর্থাৎ ১ কোটি টাকার ঋণ প্রকল্পের জন্য ৭০ থেকে ৮০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ দেওয়া হয়। বাকি ২০ থেকে ৩০ লাখ টাকা গ্রাহকের নিজের থাকতে হয়। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখিয়ে ঋণ অনুমোদন করতে হয়। বিএইচবিএফসির ঋণের বৈশিষ্ট্যের মধ্যে আরও রয়েছে ওয়ান স্টপ সার্ভিস সুবিধা। এখন কাগজপত্র তৈরিতে তারা সহায়তা করে।

প্রতিষ্ঠানটি বাড়ি নির্মাণ ও এর সঙ্গে সম্পর্কিত ১২ ধরনের ঋণ দেয়। যেমন জিরো ইকুইটি আবাসন ঋণ, নগর বন্ধু, প্রবাস বন্ধু, পল্লীমা, কৃষক আবাসন ঋণ, আবাসন মেরামত, আবাসন উন্নয়ন, ফ্ল্যাট ঋণ, ফ্ল্যাট নিবন্ধন ঋণ, হাউজিং ইকুইপমেন্ট ক্রয় ঋণ, সরকারি কর্মচারীদের জন্য গৃহ নির্মাণ ও ইসলামি শরিয়াভিত্তিক বাড়ি নির্মাণ বিনিয়োগ ‘মনজিল’।

প্রাসঙ্গিক কথাঃ “ঢাকা বৃত্তান্ত”প্রচলিত অর্থে কোন সংবাদ মাধ্যম বা অনলাইন নিউজ সাইট নয়। এখানে প্রকাশিত কোন ফিচারের সাথে সংবাদ মাধ্যমের মিল খুঁজে পেলে সেটি শুধুই কাকতাল মাত্র। এখানে থাকা সকল তথ্য ফিচার কেন্দ্রীক ও ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত। “ঢাকায় থাকি”কর্তৃপক্ষ বিশ্বাস করে এসব তথ্য একত্রিত করার ফলে তা ঢাকাবাসীকে সাহায্য করছে ও করবে। আসুন সবাই আমাদের এই প্রিয় ঢাকা শহরকে সুন্দর ও বাসযোগ্য করে গড়ে তুলি। আমরা সবাই সচেতন, দায়িত্বশীল ও সুনাগরিক হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করি।

কুইক সেল অফার

পূর্বাচল আমেরিকান সিটি | জীবনের সমস্ত আয়োজন এখানে অপেক্ষা করছে

পূর্বাচল আমেরিকান সিটি | জীবনের সমস্ত ...



১০৫ বার পড়া হয়েছে