লায়ন্স ক্লাব ঢাকার আলোর মিছিলের সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে রক্তদান কর্মসূচি পালিত হয়েছে। এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেছেন লায়ন্স ক্লাবের জেলা গভর্নর লায়ন নাসিম মাহমুদ।

রোববার (১০ অক্টোবর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের লায়ন্স ভবনে লায়ন্স ক্লাব অব ঢাকার আলোর মিছিলে, জেলা ৩১৫ বি-৩-এর উদ্যোগে এই রক্তদান কর্মসূচি পালিত হয়। কর্মসূচিতে বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ ইউনিট রক্ত সংগ্রহের কার্যক্রম পরিচালনা করে।

অনুষ্ঠানে লায়ন্স ক্লাবের জেলা গভর্নর লায়ন নাসিম মাহমুদ বলেন, ১ অক্টোবর থেকে আমাদের সেবা সপ্তাহ শুরু হয়েছে। তবে আমাদের সেবা সপ্তাহ আগামী ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। পৃথিবীজুড়ে ১ অক্টোবর থেকে সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে নানা কর্মসূচি চলছে। একইভাবে আমারাও নানা ধরনের সেবা কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত থেকে কাজ করে যাচ্ছি। আজ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অনেকে রক্ত দিয়েছেন। লায়ন্স ক্লাবের আলোর মিছিলের রক্তদান কর্মসূচি দেখে অনেকেই রক্তদানে উদ্বুদ্ধ হবে বলে আমরা আশাবাদী।

তিনি আরও বলেন, দেশব্যাপী আমাদের সেবা কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয়ে আসছে। সারাদেশে আমাদের ১০০টি ক্লাব আগামী ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত বিভিন্ন সেবা কার্যক্রম পরিচালনা অব্যাহত রাখবে। বর্তমানে আমরা রক্তদানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। আগামী দিনেও লায়ন্স ক্লাবের সেবা অব্যাহত থাকবে।

আলোর মিছিলের সেক্রেটারি লায়ন কামরুল হাসান খন্দকার বলেন, আলোর মিছিলের সেবামূলক কার্যক্রম সারাবছর ধরে চলতে থাকে। আমরা প্রতিমাসেই রক্তদানসহ নানা ধরনের সেবামূলক কর্মসূচি পালন করে থাকি। আলোর মিছিল সারাবছর জনগনের কল্যাণে কাজ করে থাকে।

লায়ন্স ক্লাব ঢাকা আলোর মিছিলের সভাপতি লায়ন জামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে আজ (রোববার) আমরা রক্তদান কর্মসূচি পালন করেছি। আমাদের সেবা সপ্তাহ আগামী ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত চলমান থাকবে। আলোর মিছিল সবসময় জনগণের কল্যাণে কাজ করে। ভবিষ্যতে আমাদের সেবামূলক কার্যক্রমের পরিধি আরও বাড়ানো হবে।

ফিচার বিজ্ঞাপন

Premium Villa

মূল্য: ১৩,৫০০ টাকা/রাত

Australia Visa for Businessman

মূল্য: 20,000 Taka

জেলা কেবিনেট সেক্রেটারি ডা. কাজী মাযহারুল ইসলাম দোলন বলেন, বাংলাদেশে লায়ন্স ক্লাবকে কয়েকটি জেলায় ভাগ করা হয়েছে। আমাদের জেলা হলো বি-৩। এতে সাড়ে চারশ চিকিৎসক নিয়োজিত রয়েছেন। আমরা নানা ধরনের চিকিৎসাসেবা দিয়ে থাকি। সারাবছর ধরে আমাদের জনকল্যাণমূলক কর্মসূচিগুলো চালু থাকে। যেমন— আমরা বন্যার্তদের সহায়তায় কাজ করি। কোভিড-১৯ চলাকালে আমরা দিন-রাত পরিশ্রম করে জনগণকে সেবা দিয়েছি। দরিদ্রদের মধ্যে খাদ্য বিতরণ করেছি। অন্ধ কল্যাণ সমিতির সঙ্গে কাজ করেছি। আমরা জনসেবামূলক যত কর্মকাণ্ড রয়েছে সবগুলোর সঙ্গে কাজ করার চেষ্টা করে থাকি।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন প্রথম জেলা গভর্নর লায়ন অধ্যাপক সিরাজুল হক চৌধরী, দ্বিতীয় জেলা গভর্নর ফারহানা নাজ ও অক্টোবর সেবা সপ্তাহের চেয়ারম্যান লায়ন সাব্বির মুহাম্মদ সায়েম।

আলোর মিছিলের অক্টোবর সেবা সপ্তাহের রক্তদান কর্মসূচিতে অন্যান্যদের মধ্যে জেলা কেবিনেট ট্রেজারার প্রকৌশলী ফেরদৌসা হাসান বাণী, ক্লাব সভাপতি লায়ন জামাল উদ্দিন আহমেদ, ক্লাব সেক্রেটারি কামরুল হাসান খন্দকার এবং জেলা ৩১৫ বি-৩-এর নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রাসঙ্গিক কথাঃ “ঢাকা বৃত্তান্ত”প্রচলিত অর্থে কোন সংবাদ মাধ্যম বা অনলাইন নিউজ সাইট নয়। এখানে প্রকাশিত কোন ফিচারের সাথে সংবাদ মাধ্যমের মিল খুঁজে পেলে সেটি শুধুই কাকতাল মাত্র। এখানে থাকা সকল তথ্য ফিচার কেন্দ্রীক ও ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহীত। “ঢাকায় থাকি”কর্তৃপক্ষ বিশ্বাস করে এসব তথ্য একত্রিত করার ফলে তা ঢাকাবাসীকে সাহায্য করছে ও করবে। আসুন সবাই আমাদের এই প্রিয় ঢাকা শহরকে সুন্দর ও বাসযোগ্য করে গড়ে তুলি। আমরা সবাই সচেতন, দায়িত্বশীল ও সুনাগরিক হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করি।



১৮ বার পড়া হয়েছে